কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

মসজিদে হারামে মহিলাদের ইতিকাফ এবং ইহরাম

প্রশ্ন: কাবা মসজিদে মহিলারা ইতিকাফ করতে পারবে কি? ইহরাম অবস্থায় মহিলাদের পোশাক কী হবে? ইহরাম অবস্থায় মহিলারা মাথায় ক্যাপ পরে এরপর নিকাব বাঁধতে পারবে কি ?

উত্তর:
✪ অধিক বিশুদ্ধ মতানুসারে মহিলাদের জন্য মসজিদে ইতিকাফ করা শর্ত। মসজিদ ছাড়া বাড়িতে এতেকাফ শুদ্ধ নয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত পড়ুন:
https://goo.gl/kTThgw
হারামাইন তথা মক্কা ও মদিনার মসজিদে মহিলাদের জন্য আলাদা ইতিকাফের ব্যবস্থা রয়েছে।
মদিনার মসজিদে নব্বীর একপাশে এবং মক্কায় মসজিদে হারামের আন্ডারগ্রাউন্ডে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক পৃথক এতেকাফ এর চমৎকার ব্যবস্থা রয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ।
✪ ইহরামের জন্য মহিলাদের আলাদা কোনও পোশাক নাই। বরং তারা পূর্ণ হিজাব সহকারে তাদের স্বাভাবিক পোশাক পরিধান করবে। এমনকি ইহরাম ছাড়াও যেভাবে সে মুখমণ্ডল সহ সারা শরীর আবৃত করে একইভাবে ইহরাম অবস্থায়ও পূর্ণ পর্দা করবে। যেমন আয়েশা রা. বলেন:
كَانَ الرُّكْبَانُ يَمُرُّونَ بِنَا وَنَحْنُ مَعَ رَسُولِ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم- مُحْرِمَاتٌ فَإِذَا حَاذَوْا بِنَا سَدَلَتْ إِحْدَانَا جِلْبَابَهَا مِنْ رَأْسِهَا إِلَى وَجْهِهَا فَإِذَا جَاوَزُونَا كَشَفْنَاهُ.
“আমরা ইহরাম অবস্থায় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সঙ্গে ছিলাম। তখন আরোহীরা আমাদের সঙ্গে পথ চলছিলেন। যখন তারা আমাদের আড়াআড়ি হন, আমাদের সঙ্গিনীরা তাদের বড় চাদর মাথা থেকে চেহারায় ঝুলিয়ে দেন। তারা আমাদের অতিক্রম করে চলে যাবার পরই আমরা তা উন্মুক্ত করি।” [আবু দাঊদ : ৫৩৮১; বাইহাকী : ৩৩৮৮, হাদিসটি অন্যান্য সমার্থবোধক হাদিসের মাধ্যমে হাসান, শাইখ আলবানী রহ. রচিত জিলবাবুল মারআহ ]

✪ তবে ইহরাম অবস্থায় নেকাব দ্বারা মুখ বাঁধবে না বরং মাথার উপরের ওড়না ফেলে মুখমণ্ডল ঢাকবে। অনুরূপভাবে হাত মোজা পরিধান করবে না। বরং বোরকার লম্বা আস্তিন দ্বারা হাতের কব্জি দ্বয় ঢেকে রাখবে।
لا تَنْتَقِبْ الْمَرْأَةُ الْمُحْرِمَةُ وَلاَ تَلْبَسْ الْقُفَّازَيْنِ
“ইহরাম বাঁধা মহিলা নিকাব ও হাত মোজা ব্যবহার করবে না।” (সহীহ বুখারী হাদিস নম্বরঃ [1838] অধ্যায়ঃ ২৮/ ইহরাম অবস্থায় শিকার এবং অনুরূপ কিছুর বদলা (كتاب جزاء الصيد) তাওহীদ পাবলিকেশন)
তবে পা মোজা পরিধান করা জায়েজ রয়েছে।
✪ মাথায় ক্যাপ পরে মুখের সামনে নিকাব ঝুলিয়ে রেখেও পর্দা করা বৈধ হবে ইনশাআল্লাহ। কেননা, এতে একদিকে মুখমণ্ডলের পর্দাও যেমন হল তেমনি নিকাব পরারও প্রয়োজন হল না।
▬▬▬ ◈◉◈▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
(লিসান্স: মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়)
দাঈ, জুবাইল দাওয়া এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।

Share This Post