পুরপুরুষের উপস্থিতিতে মহিলাদের সালাত আদায় করার বিধান

পুরপুরুষের উপস্থিতিতে মহিলাদের সালাত আদায় করার বিধান। (প্রসঙ্গ: সমুদ্র সৈকতে পরপুরুষের সামনে এক মহিলার সালাত আদায়ের ভাইর‍্যাল ভিডিও)
▬▬▬▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬▬▬▬
প্রশ্ন: ফেসবুকে একটা ভিডিও দেখলাম যে, একজন মহিলা সমুদ্র সৈকতে সালাত আদায় করছে। যেখানে দর্শনার্থী অনেক নারী-পুরুষের উপস্থিতি ছিল। উল্লেখ্য যে, তাকে বোরখা পরা অবস্থায় নয় বরং তিনি সালোয়ার-কামিজ পরিহিত ছিলেন। আমার প্রশ্ন হল, মহিলারা সালাত ছুটে যাওয়ার আশঙ্কায় এভাবে রাস্তার পাশে বা জনসম্মুখে সালাত আদায় করতে পারবে কী? অনেক মেয়েকে দেখছি, বর্তমানে রাস্তায় নেমে সালাত আদায় করতে চাচ্ছে। কারণ তাদের সালাত ছুটে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এটা কতটুকু শরিয়ত সম্মত?▬▬▬▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬▬▬▬
উত্তর:
প্রথমত: জানা দরকার যে, মহিলাদের জন্য নিজ বাড়িতে সালাত আদায় করা উত্তম। তবে মসজিদে যদি পড়ার সুযোগ থাকে তাহলে সেখানেও পড়া জায়েজ আছে। যেমন:

হাদিসে এসেছে, উম্মে হুমায়েদ রা. থেকে বর্ণিত। তিনি ছিলেন আবু হুমায়েদ রা.-এর স্ত্রী। তিনি একদা নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর খেদমতে উপস্থিত হয়ে আরজ করলেন, হে আল্লাহর রসূল, আমি আপনার সাথে মসজিদে নববীতে নামাজ পড়তে ভালবাসি।
রসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেন,

قَدْ عَلِمْتُ أَنَّكِ تُحِبِّينَ الصَّلَاةَ مَعِي، وَصَلَاتُكِ فِي بَيْتِكِ خَيْرٌ لَكِ مِنْ صَلَاتِكِ فِي حُجْرَتِكِ، وَصَلَاتُكِ فِي حُجْرَتِكِ خَيْرٌ مِنْ صَلَاتِكِ فِي دَارِكِ، وَصَلَاتُكِ فِي دَارِكِ خَيْرٌ مِنْ صَلَاتِكِ فِي مَسْجِدِ قَوْمِكِ، وَصَلَاتُكِ فِي مَسْجِدِ قَوْمِكِ خَيْرٌ مِنْ صَلَاتِكِ فِي مَسْجِدِي

“আমি জানি, তুমি আমার সাথে সালাত আদায় করতে ভালবাসো। কিন্তু তোমার জন্যে তোমার নিজের ক্ষুদ্র কক্ষে সালাত আদায় করা, বাড়িতে (প্রশস্ত ঘরের মধ্যে) সালাত আদায়ের চেয়ে উত্তম। আর বাড়িতে সালাত আদায় করা, বাড়ির উঠানে সালাত আদায়ের চেয়ে উত্তম। নিজ বাড়ির উঠানে সালাত আদায় করা মহল্লার মসজিদে সালাত আদায়ের চেয়ে উত্তম। আর মহল্লার মসজিদে সালাত আদায় করা আমার মসজিদে (মসজিদে নববীতে) সালাত আদায়ের চেয়ে উত্তম।’’ তারপর উম্মে হুমাইদ রা. এর কথামত তার জন্যে নিজ ঘরের ভিতরে অন্ধকার স্থানে সালাত আদায় করেছেন। [হাদিসটি বর্ণনা করেছেন ইমাম আহমদ ৬/৩৭১, ইবনে খুযায়মা ৩/৯৫, ইবনে হিব্বান ৪/২২-হাসান]

দ্বিতীয়ত: যদি কোনও বিশেষে পরিস্থিতিতে পরপুরুষের সামনে সালাত আদায়ের প্রয়োজন হয় তাহলে তা জায়েজ আছে। তবে যথাসাধ্য চেষ্টা করতে হবে, লোক চক্ষুর আড়ালে গিয়ে সালাত আদায় করার। যেমন: কোন ঘর, ঝোপঝাড় বা গাড়ি ইত্যাদির আড়ালে। কমপক্ষে চেষ্টা করবে তুলনামূলক যেখানে লোকসমাগম কম সেখানে সালাত আদায় করার। কিন্তু এমন পরিস্থিতি না থাকলে পরপুরুষের সামনেই পূর্ণাঙ্গ পর্দা সহকারে সালাত আদায় করা যাবে। এ ক্ষেত্রে মুখমণ্ডল এবং হাত সহ পুরো শরীর ভালোভাবে ঢাকবে। এই অজুহাতে সালাত ছেড়ে দেওয়া বৈধ নয়।‌ কারণ ইসলামে সালাতের মর্যাদা অপরিসীম। শরিয়তের ওজর ব্যতিরেকে তা তার নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম করে পড়া জায়েজ নাই।

আর মহিলাদের কর্তব্য হল, বাইরে যাওয়ার সময় বোরকা দ্বারা পুরো শরীর আবৃত করা। কিন্তু যদি কখনো বোরকা না থাকে এবং সালাতের সময় হয়ে যায় তাহলে সে যে পোশাকে আছে সে পোশাকেই সারা শরীর ভালোভাবে ঢেকে সালাত আদায় করবে।

❑ সৌদি আরবের স্থায়ী ফতোয়া কমিটির ফতোয়া:

প্রশ্ন: একজন মহিলা যদি তার কাছে পরপুরুষ থাকে-যেমন: মসজিদুল হারামে, একইভাবে যদি রাস্তায় মহিলাদের জন্য কোন মসজিদ না থাকে তাহলে সে কীভাবে নামাজ পড়বে?
তারা উত্তরে বলেছেন,
إن المرأة يجب عليها ستر جميع بدنها في الصلاة إلا الوجه والكفين لكن إذا صلت وبحضرتها رجال أجانب يرونها وجب عليها ستر جميع بدنها بما في ذلك الوجه والكفان
“একজন মহিলার জন্য তার মুখমণ্ডল ও হাতের কব্জি দ্বয় ব্যতীত নামাজে সমস্ত শরীর ঢাকা ওয়াজিব। তবে যদি সে পরপুরুষদের উপস্থিতিতে নামাজ পড়ে তবে তাকে কব্জি দ্বয় ও মুখমণ্ডলসহ সমস্ত শরীর ঢেকে রাখতে হবে।”
[সৌদি আরবের স্থায়ী কমিটির ফতোয়া কমিটি, ৭/৩৩৯] আল্লাহ আলাম।
▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল।
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।