কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

কুরবানির দিনে কুরবানি হওয়ার আগ পর্যন্ত না খেয়ে থাকার বিধান

প্রশ্ন : কুরবানির দিনে কুরবানি হওয়ার আগ পর্যন্ত না খেয়ে থাকার কি কোনো নিয়ম আছে?

উত্তর :– কুরবানীর দিন ঈদের সালাতের পূর্বে কোন কিছু না খাওয়া সুন্নত। বরং ঈদের সালাত শেষে খাওয়া উত্তম। বিশেষ করে যদি ঈদের সালাত শেষে কুরবানীর গোস্ত খাওয়া হয় তাহলে তা অধিক উত্তম। হাদীসে এসেছে,
عن بريدة رضي الله عنه قال: كان النبي صلى الله عليه وسلم لا يخرج يوم الفطر حتى يأكل، ولا يأكل يوم الأضحى حتى يرجع فيأكل من أضحيته. أحمد: ১৪২২ وصححه الألباني في صحيح ابن ماجه
বুরাইদা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঈদুল ফিতরের দিনে না খেয়ে বের হতেন না, আর ঈদুল আজহার দিনে ঈদের সালাতের পূর্বে খেতেন না। সালাত থেকে ফিরে এসে কুরবানীর গোশত খেতেন।[শাইখ আলবানী রচিত, সহীহ ইবনে মাজাহ: হাদীস নং ১৪২২ ]
🔹🔸🔹🔸
প্রশ্ন : এটা কি যে কোরবানি দিবে তার জন্য নাকি পরিবারের সবার জন্য এটা সুন্নত?
: যে ব্যক্তি কুরবানী করবে তার জন্য এই বিধান প্রযোজ্য হবে। হাদীসের ভাষা থেকে এটাই স্পষ্ট হয়। সুতরাং যে ব্যক্তি কুরবানী করবে না সে ঈদের পূর্বে খেতে পারে। ইমাম যাইলাঈ তাবঈনুল হাকায়েক গ্রন্থে, আল্লামা মোবারকপূরী তুহফাতুল আহওয়াযী গ্রন্থে এবং আরও একদল আলেম হাদীসের আলোকে উপরোক্ত মত ব্যক্ত করেছেন।) আল্লাহু আলাম।

উত্তর প্রদানে ::: শাইখ আবদুল্লাহিল হাদী বিন আবদুল জলীল
দাঈ জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, ksa

Share This Post