কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

আমরা যদি নেকির কাজ করি কিন্তু এর পরে কোনো গুনাহের কাজে লিপ্ত হলে কি আমাদের নেক আমলগুলো আল্লাহ কবুল করবেন না

*প্রশ্ন: আমরা যদি নেকির কাজ করি কিন্তু এর পরে কোনো গুনাহের কাজে লিপ্ত হলে কি আমাদের নেক আমলগুলো আল্লাহ কবুল করবেন না? বা ঐ পাপ কাজে লিপ্ত হওয়ার কারণে আমাদের সকল আমল বরবাদ হয়ে যাবে?*

উত্তর:
কেউ যদি শিরক করে বা ইসলাম থেকে বের হয়ে যায় (মুরতাদ) হয়ে যায় তাহলে তার অতীতের সকল নেক আমল নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু অন্যান্য গুনাহ করলে অতীতের সকল নেক আমল নষ্ট হয় না: কিন্তু ঈমান কমে যায়।

অবশ্য তওবা করলে আল্লাহ তাআলা পাপরাশী (তার পরিমান যতই হোক না কেন) ক্ষমা করে দেন আর তওবা করার পাশাপাশি অধিক পরিমানে নফল ইবাদত (নফল নামায, রোযা, দান-সদকা, কুরআন তিলাওয়াত…ইত্যাদি) করলে পূর্বোক্ত গুনাহ সমূহকে নেকিতে রূপান্তরিত করে দেন এবং তার ঈমান পূর্বের অবস্থায় ফিরে আসে। এভাবে সে যত বেশি ইবাদত করবে ততই তার ঈমান বৃদ্ধি পেতে থাকে।
আল্লাহ তাআলা বলেন:
إِلَّا مَن تَابَ وَآمَنَ وَعَمِلَ عَمَلًا صَالِحًا فَأُولَـٰئِكَ يُبَدِّلُ اللَّـهُ سَيِّئَاتِهِمْ حَسَنَاتٍ ۗ وَكَانَ اللَّـهُ غَفُورًا رَّحِيمًا- وَمَن تَابَ وَعَمِلَ صَالِحًا فَإِنَّهُ يَتُوبُ إِلَى اللَّـهِ مَتَابًا
“কিন্তু যারা তওবা করে, বিশ্বাস স্থাপন করে এবং সৎকর্ম করে, আল্লাহ তাদের গুনাহগুলোকে নেকি দ্বারা পরিবর্তত করে এবং দেবেন। আল্লাহ ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।” (সূরা ফুরকান: ৭০)
আল্লাহ তাওফিক দান করুন। আমীন।
————-
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
লিসান্স, মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, সৌদি আরব

Share This Post