মানুষের কেবল হাত, পা, চোখ ইত্যাদি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ছবি তোলা বা অঙ্কন করার বিধান

প্রশ্ন: মানুষের সম্পূর্ণ ছবি না এঁকে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ছবি আঁকাও কি হারাম?
উত্তর:
ইসলামের দৃষ্টিতে মানুষ, পশু, পাখী ইত্যাদি জীব-জন্তুর ছবি তোলা বা অঙ্কন করা হারাম (একান্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া)। এ বিষয়ে অনেক হাদিস বর্ণিত হয়েছে। তম্মধ্যে একটি হাদিস হল:
আয়েশা রা. হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (তাবুক যুদ্ধের) সফর থেকে প্রত্যাগমন করলেন। তখন আমি আমার কক্ষে পাতলা কাপড়ের পর্দা টাঙিয়ে ছিলাম। তাতে ছিল (প্রাণীর) অনেকগুলো ছবি। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এটা দেখে ছিঁড়ে ফেললেন এবং বললেন,
أَشَدَّ النَّاسِ عَذَابًا يَوْمَ الْقِيَامَةِ الَّذِين يُضَاهُونَ بِخَلْقِ اللهِ
“কিয়ামতের দিন সে সব মানুষের সবচেয়ে কঠিন শাস্তি হবে, যারা আল্লাহর সৃষ্টির (প্রাণীর) অনুরূপ তৈরি করবে।”
আয়েশা রা. বলেন, “এরপর আমরা তা দিয়ে একটি বা দুটি বসার আসন তৈরি করি।”
[সহীহুল বুখারী, অধ্যায়: ৭৭ : পোশাক, অধ্যায় ৯১, হা/ ৫৯৫৪; মুসলিম, অধ্যায় ৩৭ : পোশাক ও অলঙ্কার, অধ্যায় ২৬, হা/ ২১০৭]

তবে মাথা ও মুখাবয়ব না থাকলে তা হারাম ও নিষিদ্ধ ছবি/মূর্তির অন্তর্ভুক্ত হবে না। যেমন:
◈ হাদিসে এসেছে,
مُر برأسِ التِّمْثَالِ يَقْطَعُ فَيَصِيْرُ عَلي هَيئَةِ الشَّجَرَةِ
“আপনি মূর্তির মাথা কেটে দিতে বলেন, ফলে উহা গাছের আকৃতি হয়ে যাবে।” (আবু দাউদ-সহিহ, শাইখ আলবানি )

◈ ইবনে আব্বাস রা. বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,
عن ابن عباس، قال: قال رسول الله صلى الله عليه وسلم وحكي ذلك عن عكرمة ” انتهى
“যদি ছবির মাথা কেটে নেয়া হয় তাহলে আর অ পছন্দনীয় হওয়ার বিষয়টি থাকবে না। “মাথাই হল, ছবি।” [সহিহুল জামে-আলবানি, হা/৩৮৬৪]
ইবনে কুদামা বলেন,
فإن قَطَعَ رأسَ الصورة ذهبت الكراهة
“যদি মাথা কেটে নেয়া হয় তাহলে আর ছবি থাকলো না।” এমন কথা ইকরিমা রহ. থেকেও বর্ণিত হয়েছে।” [আল মুগনি ৮/১১১]

সুতরাং মানুষ বা জীব-জন্তুর শুধু চোখ, হাত, পা, মস্তক বিহীন দেহ ইত্যাদি অঙ্কন করা হলে বা ছবি তোলা হলে তাতে সমস্যা নাই ইনশাআল্লাহ।

অনুরূপভাবে যদি মানুষ বা জীব-জন্তুর ছবি অঙ্কনের প্রয়োজন হয় তাহলে এমনভাবে ছবি তোলা বা অঙ্কন করায় কোনও দোষ নেই যে, তার চেহারা বিপরীত দিকে ঘুরানো আছে অথবা তা কোনও গাছ, দেওয়াল বা অন্য কিছুর আড়ালে আছে- যার কারণে তার চোখ-মুখ, নাক, কান ইত্যাদি অবয়ব দেখা যাচ্ছে না।

তবে ছবির মাধ্যমে নারীদের শরীরের এমন কোনও অংশই পরপুরুষের সামনে প্রকাশ করা বৈধ নয়-যা বাস্তবে প্রকাশ করা বৈধ নয়।

❑ বর্তমান শতকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ফকিহ আল্লামা মুহাম্মদ বিন সালেহ আল উসাইমিন রাহ, বলেন, যে ব্যক্তি এমন কিছু তৈরি করবে যা আল্লাহর সৃষ্টির সাদৃশ্যপূর্ণ সে এ হাদিসের অন্তর্ভুক্ত হবে:
لعن النبي صلى الله عليه وسلم المصورين
“নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যারা ছবি তোলে তাদেরকে (ফটোগ্রাফারদেরকে) অভিশাপ দিয়েছেন।” এবং এই হাদিসেরও অন্তর্ভুক্ত হবে (রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন),
إن أشد الناس عذابا يوم القيامة المصورون
“কেয়ামতের দিন সবচেয়ে কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে তাদেরকে যারা ছবি তোলে (ফটোগ্রাফারদেরকে)।” [সহিহ বুখারি-আব্দুল্লাহ ইবনে মাসঊদ রা. হতে বর্ণিত]
কিন্তু আমি যেমনটি বলেছি: “যদি ছবিটি পরিষ্কার না হয় অর্থাৎ এতে চোখ, নাক, মুখ বা আঙুল না থাকে তাহলে তা সম্পূর্ণ ছবি নয় এবং ‘আল্লাহর সৃষ্টির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ’ও নয়।” [শাইখ ইবনে উসাইমিন এর এর মাজমু’ ফতোয়া-ফতোয়া সমগ্র, ২ খণ্ড, প্রশ্ন নং ৩৩১] আল্লাহ ভালো জানেন।
▬▬▬ ◈◉◈▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
-আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানি-

Share On Social Media