কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

মহিলাদের নিকাব পরা অবস্থায় চোখসজ্জা করে পরপুরুষদের সামনে তা বের করে রাখার বিধান

প্রশ্ন: আমি এবং আমার স্বামী দু’জনই প্রাকটিসিং মুসলিম এবং দু’জনই ইসলামের মূল বিধিবিধানগুলো মানি বা মেনে চলার চেষ্টা করি। পর্দার গুরুত্ব উপলব্ধি করে আমি নিকাব সহ পর্দা করি এবং প্রায় সময় হাত মোজাও ব্যবহার করি।
প্রায়ই আমি ও আমার স্বামী ঘুরতে বের হই এবং আমি এ ক্ষেত্রে একটি ভালো বোরকা ও চোখে হালকা সাজসজ্জা করি। আমার স্বামীও এমনটি প্রত্যাশা করে ঘুরতে যাবার সময়।
আরও বলার প্রয়োজন, নিকাবের কারণে আমার আরও সাজ থাকলেও চোখ ব্যতীত কিছু দেখা যায় না।
এখন আমার প্রশ্ন হল, যদি এমন ক্ষেত্রে অন্য কোন নন-মাহরাম আমার চোখসজ্জা দেখে ফেলে সে ক্ষেত্রে কি আমার পাপ হবে? অর্থাৎ আমি আমার স্বামীর ভালো লাগার কথা ভেবে যদি চোখসজ্জা করে ঘুরতে বের হই এবং নন-মাহরাম পুরুষরা তা দেখে সেক্ষেত্রে কি তা জায়েজ হবে এভাবে ঘুরতে যাওয়া?

উত্তর:

দুআ করি, মহান আল্লাহ আপনাদের দাম্পত্য জীবন ঈমান, আমলে সালেহ, তাকওয়া এবং সুখ-সমৃদ্ধিতে ভরপুর করে রাখেন সবসময়। আমীন।

অত:পর, আমাদের জানা আবশ্যক যে, আল্লাহ তাআলা নারীদেরকে পরপুরুষদের সামনে তাদের সৌন্দর্য প্রকাশ করতে নিষেধ করেছেন। (দেখুন সূরা নূর, 31 নম্বর আয়াত)

নারীদের সবচেয়ে আকর্ষণীয় অঙ্গ হল চেহারা। আর চেহারার মধ্যে সবচেয়ে আকর্ষণীয় অঙ্গ হল চোখ। সুতরাং বাইরে যাওয়ার সময় রাস্তা দেখার সুবিধার্থে চক্ষুদ্বয় বাহির করে রাখা বৈধ হলেও চোখসজ্জা করে বের হওয়ার বৈধ নয়। কেননা, তা পরপুরুষদেরকে আকৃষ্ট করা এবং ফিতনায় ফেলার কারণ হবে।
তবে আপনার স্বামী যদি চোখের সজ্জায় খুশি হয় তবে বাইরে চলার সময় কালো চশমা পরিধান করতে পারেন যাতে পরপুরুষের দৃষ্টি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।
আল্লাহু আলাম।
——————–
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।।

Share This Post