কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

কোন মানুষের নাম ‘রাব্বি’ রাখা যাবে কি?

প্রশ্ন: কোন মানুষের নাম ‘রাব্বি’ রাখা যাবে কি?
উত্তর:
আরবি ভাষা অনুযায়ী ‘রাব্বি’ শব্দটির অর্থ: আমার আমার নেতা, আমার সরদার, আমার মালিক, আমার প্রতিপালক ইত্যাদি।
আর হিব্রু ভাষা অনুযায়ী ‘রাব্বি’ অর্থ: গুরু, নেতা, সরদার শিক্ষক। ইহুদিরা তাদের ধর্মজাযককে ‘রাব্বি’ (গুরু) বলে সম্বোধন করে থাকে। (উইকিপিডিয়া)
أما اللقب الأكثر انتشارا لدى اليهود وباللغة العبرية فهو رب (רב) أو ربي (רבי)، ويعني بالعبرية القديمة “سيد” أو “معلم” (والكلمة النظيرة بالعربية هي رَبّ بمعنى سيد)
যাহোক সর্বাবস্থায়, এ নাম টি মাকরূহ বা অপছন্দনীয়। সুতরাং তা পরিহার করাই শ্রেয়। তবে এটিকে সরাসরি হারাম বা শিরক বলা যাবে না (যেমনটা অনেকেই বলে থাকে)। কারণ ভাষাগত তারতম্যের আলোকে এ শব্দটির গ্রহনযোগ্য অর্থ নেয়ারও সুযোগ আছে। তাছাড়া যখন কোনও শব্দের একাধিক অর্থ থাকে তখন নিরাপদ ও আপত্তি হীন অর্থটি গ্রহণ করতে হবে।
অতএব, এখানে “আমার প্রভু বা প্রতিপালক” অর্থ গ্রহন করা যাবে না। অন্যথায় শিরক হবে। কিন্তু আমার নেতা, আমার সরদার, শিক্ষক, গুরু ইত্যাদি অর্থ গ্রহণ করলে এতে কোনও সমস্যা নেই ইনশাআল্লাহ। আল্লাহু আলাম।
هذا ما أرى و الله أعلم بالصواب
-আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল।
জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।

Share This Post