কুদ্দুস নামের অর্থ ও ব্যাখ্যা এবং বন্ধ হোক সোশ্যাল মিডিয়ায় আল্লাহ তাআলার এই পবিত্র‌ নাম নিয়ে ট্রল ও ব্যাঙ্গাত্মক ভিডিওর প্রচারণা

জেনে নিন, কুদ্দুস নামের অর্থ ও ব্যাখ্যা: বন্ধ হোক সোশ্যাল মিডিয়ায় আল্লাহ তাআলার এই পবিত্র‌ নাম নিয়ে ট্রল ও ব্যাঙ্গাত্মক ভিডিওর প্রচারণা:

🔸 মহান আল্লাহর অতিপবিত্র কুদ্দুস নামটির অর্থ ও ব্যাখ্যা:

আল কুদ্দূস (الْقُدُّوسُ) নামটি আল্লাহর অসংখ্য সুন্দর নামের মধ্যে অন্যতম। এর অর্থ: পূত-পবিত্র, নিখুঁত, মহামহিম ও মহিমাময়।
কারন:
– মহান আল্লাহ সকল ভুল-ত্রুটি, ভ্রম, তন্দ্রা, ক্লান্তি, দুর্বলতা ও অক্ষমতার ঊর্ধ্বে এবং সর্বপ্রকার অনিষ্ট ও অকল্যাণ থেকে মুক্ত ও পবিত্র।
– পরিপূর্ণ গুণ ও সর্বোচ্চ যোগ্যতার অধিকারী একমাত্র তিনি।
– তিনি মা-বাবা, সন্তান, প্রতিপক্ষ ও সমকক্ষ‌ থেকে মুক্ত।
– তিনি গুণ-বৈশিষ্ট্য, কর্ম কুশলতা, জ্ঞান, প্রজ্ঞা, শক্তিমত্তা ইত্যাদি সবকিছুতে অতুলনীয় ও অদ্বিতীয়।
– তিনি আসমান-জমিন সর্বত্র মহিমান্বিত ও মহামহীন।
– ফেরেশতা মণ্ডলী সদা-সর্বদা তার মর্যাদা, পবিত্রতা, বড়ত্ব ও শ্রেষ্ঠত্বের গুনগানে রত রয়েছে। যেমন: আল্লাহ তাআলা বলেন,

وَنَحۡنُ نُسَبِّحُ بِحَمۡدِكَ وَنُقَدِّسُ لَكَ

“(ফেরেশতারা বললেন, হে আমাদের প্রতিপালক) আর আমরা আপনার প্রশংসাময় পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করি।” [সূরা বাকারা: ৩০]

🔸 কুরআন ও হাদিসে এই নামটির ব্যবহার:

মহাগ্রন্থ আল কুরআনে এ নামটি দুবার উল্লিখিত হয়েছে। যেমন:
▪️১. আল্লাহ তাআলা বলেন,
هُوَ الْمَلِكُ الْقُدُّوسُ
“তিনি পূত-পবিত্র মহান বাদশা।” [সূরা আল হাশর: ২৩]
▪️২. আল্লাহ তাআলা আরো বলেন,

يُسَبِّحُ لِلَّهِ مَا فِي ٱلسَّمَٰوَٰتِ وَمَا فِي ٱلۡأَرۡضِ ٱلۡمَلِكِ ٱلۡقُدُّوسِ ٱلۡعَزِيزِ ٱلۡحَكِيمِ

“আসমানসমূহ এবং জমিনে যা কিছু আছে সবই আল্লাহর পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করছে। যিনি অধিপতি, মহাপবিত্র, পরাক্রমশালী ও প্রজ্ঞাময়।” [সূরা জুমুআ: ১]

▪️ রুকু ও সেজদা অবস্থায় এই নাম সম্বলিত তাসবিহ পাঠ:

আয়েশা‌ রা. হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রুকু ও সেজদায় এ দুআ পড়তেন,
سُبُّوحٌ قُدُّوسٌ رَبُّ الْمَلاَئِكَةِ وَالرُّوحِ
“সুব্বুহুন কুদদূসুন্ন রব্বুল মালা-য়িকাতি ওয়ার রূহু”।
অর্থ: “সমস্ত ফেরেশতা ও জিবরিল আ. এর প্রতিপালক অত্যন্ত বরকতময় ও পুত-পবিত্র” [মুসলিম (হাদীস একাডেমী), অধ্যায়: ৪। সালাত পরিচ্ছেদ, ৪২. রুকু-সেজদায় যা বলতে হবে]
▪️রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিতর সালাত সমাপান্তে আল কুদ্দুস নাম সম্বলিত এই তাসবিহটি পাঠ করতেন:
سبحان الملك القدوس
“সুবহা-নাল মালিকিল কুদ্দুস।”
অর্থ: “আমি মহিমান্বিত পুত-পবিত্র মহান বাদশার মহিমা ও পবিত্রতা ঘোষণা করছি।”
এই দুআটি তিনবার পড়তে হয়। তন্মধ্যে তৃতীয় বারে উচ্চস্বরে পড়া কর্তব্য। [নাসাঈ ৩/২৪৪-সহিহ]

🔹 কোন মানুষকে কুদ্দুস বলে ডাকা জায়েজ নেই:

এই নামটি একমাত্র আল্লাহর জন্য নির্ধারিত। কারণ এর অন্তর্নিহিত মর্মার্থ সৃষ্টি জীবের কারো জন্য প্রযোজ্য ও শোভনীয় নয়। ‌এর হকদার কেবল তিনি। সে কারণে কোন মানুষকে শুধু কুদ্দুস বলে ডাকা জায়েজ নেই। বরং অবশ্যই ‘আব্দুল কুদ্দুস’ বলেই ডাকতে হবে। সুতরাং যে সব অজ্ঞ মুসলিম আল্লাহর এই পবিত্র ও মহিমান্বিত নামটি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মজা করছে, বিভিন্ন পশুর মুখ দিয়ে উচ্চারণ করার বা নিজেরা এই নাম ধরে ডাকার ব্যঙ্গাত্মক ভিডিও আপলোড ও শেয়ার দিচ্ছে তাদের উচিত, আল্লাহর প্রতি সম্মান প্রদর্শনার্থে এ থেকে বিরত থাকা। অন্যথায় মারাত্মক গুনাহগার হতে হবে।

যে বা যারা আল্লাহর এই মহান নাম নিয়ে ব্যাঙ্গাত্মক ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করেছে এবং যারা মজা করার জন্য মূর্খের মতো তা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড ও শেয়ার দিচ্ছে আল্লাহ তাদেরকে ইসলামের সঠিক জ্ঞান দান করুন, হেদায়েত দিন ও ক্ষমা করুন। আমিন।
আল্লাহু আলাম।
▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল।
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সৌদি আরব।

Share On Social Media