কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

স্বামীর এবাদত-বন্দেগীতে অনীহা এবং খারাপ আচরণে স্ত্রী যখন চরম বিরক্ত ও বীতশ্রদ্ধ

প্রশ্ন: স্বামীর আনুগত্য করা ফরজ। কিন্তু স্বামী যদি সালাতের ব্যাপারে যত্নশীল না হয়, মানুষকে নিয়ে অত্যাধিক সমালোচনা, বাজে ব্যবহার করা, রুঢ় হওয়া,অপমান করে কথা বলা, মানুষ সম্পর্কে বাজে ধারণা করা ইত্যাদির কারণে স্ত্রী যদি তার এসব ব্যাপার পছন্দ না করে এবং তার প্রতি শ্রদ্ধা হারিয়ে ফেলে যা তাকে তার কথা মানতে অনুৎসাহিত করে; ফলে বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্য শুরু হয়; তাহলে কি গুনাহ হবে? স্ত্রীর কী করণীয় সেক্ষেত্রে?

উত্তর:
স্বামীর মধ্যে যদি শরিয়া বিরোধী কার্যক্রম দেখা যায় তাহলে স্ত্রীর করণীয় হল, তাকে ধৈর্য ও আন্তরিকতার সাথে বুঝানোর চেষ্টা করা। এজন্য দীর্ঘ সময়ও লাগতে পারে। সেই সাথে আল্লাহর কাছে তার হেদায়েতের জন্য দোয়া করা। এতে যদি সে সংশোধিত হয় তাহলে তো ভালো। অন্যথায় সেই স্বামীর প্রতি একজন ঈমানদার স্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি উঠে যাওয়া স্বাভাবিক।
এখন সে যদি তার ব্যাপারে সম্পূর্ণ নিরাশ হয়ে যায় এবং তার সাথে ঘর-সংসার করাকে নিজের ঈমান ও আমল-আখলাকের জন্য বিপদজনক মনে করে এবং তার সাথে সংসার করার প্রতি রুচি হারিয়ে ফেলে তাহলে এ ক্ষেত্রে ইসলাম তাকে অসহ্য মানসিক যন্ত্রণা ও অরুচি নিয়ে এই স্বামীর সাথে ঘর-সংসার করাকে বাধ্যতামূলক করে নি। বরং তার জন্য খোলা তালাক নেয়ার সুযোগ রেখেছে। ইচ্ছে করলে সে তা গ্রহণ করতে পারে।
والله أعلم بالصواب
________________
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানী
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব

Share This Post