কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

সময় হওয়ার আগে সালাতের বিধান এবং ১ম ওয়াক্তে সালাত আদায়ের ফযিলত

🔰 সময়মত সালাত আদায় করা ফরজ:

আল্লাহ তাআলা মুমিনদের উপর সালাত ফরজ করেছেন নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে। তাই যথাসময়ে সালাত আদায় করা মুমিনদের জন্য ফরজ। এটি ফকীহদের পরিভাষায় সালাতের অন্যতম একটি শর্ত।

আল্লাহ তাআলা বলেন:
إِنَّ الصَّلَاةَ كَانَتْ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ كِتَابًا مَّوْقُوتًا
“নিশ্চয় নামায মুসলমানদের উপর ফরয নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে।”
(সূরা নিসা: ১০৩)।

সুতরাং সাধারণ পরিস্থিতিতে সময়ের আগে বা পরে সালাত আদায় করা জায়েয নেই।

কেউ যদি সময় হওয়ার পূর্বে সালাত আদায় করে তাহলে তার সালাত বাতিল হিসেবে গণ্য হবে। কেউ জেনে-বুঝে এমনটি করলে গুনাহগার হবে।

🔰 আওয়াল ওয়াক্ত (প্রথম সময়) এ সালাত আদায় করা সর্বোত্তম ইবাদত:

সময় হওয়ার পর শরীয়ত প্রদত্ব অনুমতি ছাড়া বিলম্ব করা ঠিক নয়। কেননা নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ১ম ওয়াক্তে সালাত আদায়কে শ্রেষ্ঠ আমল হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। যেমন হাদীসে বর্ণিত হয়েছে:
عَنْ أُمِّ فَرْوَةَ، قَالَتْ سُئِلَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم أَىُّ الأَعْمَالِ أَفْضَلُ قَالَ ‏ “‏ الصَّلاَةُ فِي أَوَّلِ وَقْتِهَا ‏”

 উম্মে ফারওয়াহ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লামকে সর্বোত্তম আমল সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, “সলাতের ওয়াক্ত হওয়ার সাথে সাথে (প্রথম ওয়াক্তেই) সলাত আদায় করা।”
(সুনান আবু দাউদ, সলাত অধ্যায়,
হাদীস নং ৪২৬, সনদ সহীহ-আলবানী।‏)
————–
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল (মাদানী)
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।।

Share This Post