যে পুরুষের স্ত্রী নাই সে হল মিসকিন হাদিসটি সহিহ নয়

প্রশ্ন: “যে পুরুষের স্ত্রী নাই সে হল, মিসকিন আর যে নারীর স্বামী নাই সে হল, মিসকিনা”এ হাদিসটি কি সহিহ?
উত্তর: এ হাদিসটি বিজ্ঞ মুহাদ্দিসগণের দৃষ্টিতে সহিহ নয়। নিম্নে এ প্রসঙ্গে সংক্ষিপ্ত আলোচনা পেশ করা হল:

এ প্রসঙ্গে ইমাম বায়হাকি তার শুয়াবুল ঈমান গ্রন্থে (৪/৩৮২ ও ৫৪৮৩) এবং ইমাম তাবারানি তার মুজামুল আওসাত গ্রন্থে (৬/৩৪৮ ও ৬৫৮৯) একটি হাদিস উল্লেখ করেছেন। তা হল,
مِسكينٌ مسكينٌ رجلٌ لا امرأةَ له ، مسكينةٌ مسكينةٌ امرأةٌ لا زوجَ لها
“যে পুরুষের স্ত্রী নাই সে হল, মিসকিন, মিসকিন আর যে নারীর স্বামী নাই সে হল, মিসকিনা মিসকিনা।”

কিন্তু এ হাদিসটির মান কি বা তা কতটুক গ্রহণযোগ্য সে বিষয়ে তদন্ত না করেই এক শ্রেণির বক্তা এবং ফেসবুক ব্যবহারকারী (বিশেষ করে অবিবাহিত যুবক-যুবতিরা) ফেসবুুকে এ বিষয়ে পোস্টের সয়লাব বইয়ে দিচ্ছে! তাই এ হাদিসটির সঠিক তাহকিক (বিশ্লেষণ) জানা প্রয়োজন। নিম্নে সংক্ষেপে তা পেশ করা হল:

ইবনে আবিদ দুনিয়া তার আল ইয়াল গ্রন্থে নিম্নোক্ত সনদে এ হাদিসটি উল্লেখ করেছেন:
حدثنا عبدالله بن معاوية الجمحي حدثنا محمد بن ثابت العبدي حدثنا هارون بن رئاب عن أبي نجيح قال قال رسول مسكين مسكين مسكين رجل ليست له امرأة قالوا يا رسول الله وإن كان كثير المال قال : وإن كان كثير المال مسكينة مسكينة مسكينة امرأة ليس لها زوج – قالوا يا رسول الله وإن كانت غنية مكثرة قال وإن كانت غنية مكثرة

◈ ১. হাফেজ হায়সামি তার মাজমাউয যাওয়ায়েদ গ্রন্থে (৪/২৫২) হাদিসটির সনদ প্রসঙ্গে বলেন, رجاله ثقات إلا أن أبا نجيح لا صحبة له “এর বর্ণনাকারীগণ সকলেই সিকাহ (বিশ্বস্ত) তবে আবু নুজাইহ [মৃত্যু: ১৩১ হিজরি] রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর সংশ্রব পান নি।” অর্থাৎ তিনি সাহাবি নন অথচ তিনি কোন সাহাবির নিকট এ হাদিসটি শুনেছেন তা উল্লেখ না করে সরাসরি “রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন” বলে বর্ণনা করেছেন।
অত:এব মুস্তালাহুল হাদিসের মূলনীতি অনুযায়ী, এ হাদিসটি মুরসাল। আর মুরসাল হাদিস জইফ (দুর্বল) হাদিসের অন্যতম একটি প্রকার।

◈ ২. এ ব্যাপারে শাইখু ইসলাম ইবনে তায়মিয়া রাহ. বলেন, ليس هذا من كلام النبي – صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّم “এটি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর কথা (হাদিস) নয়।” তিনি তার এ মন্তব্য أحاديث القصاص বা ‘গল্পবাজ বক্তাদের হাদিস’ নামক কিতাবের ৩০-৩১ পৃষ্ঠায় এবং তাঁর ফতোয়া সমগ্র ‘মাজমুউল ফাতাওয়া” গ্রন্থের’ ১৪তম খণ্ডের ১২৫ ও ৩৮০ পৃষ্ঠায় উল্লেখ করেছেন।

◈ ৩. শাইখ আলবানি বলেন, এ হাদিসটি জইফ। [জইফুত তারাগিব, ১২০৪]
الدُّنيا متاعٌ ، ومن خيرِ متاعِها امرأةٌ تُعينُ زوجَها على الآخرةِ ، مِسكينٌ مسكينٌ رجلٌ لا امرأةَ له ، مسكينةٌ مسكينةٌ امرأةٌ لا زوجَ لها .
الراوي : عبدالله بن عمرو | المحدث : الألباني | المصدر : ضعيف الترغيب
الصفحة أو الرقم : 1204 | أحاديث مشابهة | خلاصة حكم المحدث : ضعيف

◈ ৪. শাইখ আলবানি রাহ. -এর অন্যতম প্রসিদ্ধ ছাত্র, শাইখ মাশহুর হাসান সালামান এ সংক্রান্ত বিস্তারিত আলোচনা শেষে বলেন,

فلا يجوز لواعظ ولا لأحد أن ينسب هذا الحديث إلى رسول الله صلى الله عليه وسلم البتة، فهو ليس بحديث ولا يوجد له إسناد عن رسول الله صلى الله عليه وسلم، والله أعلم

“অত:এব, কোনও ওয়াজাকারী (বক্তা) বা অন্য কারও জন্য এটিকে কোনভাবেই রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর দিকে সম্বন্ধ করা জায়েজ নাই। কারণ এটি কোনো হাদিস নয় এবং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পর্যন্ত এর কোনো সনদ (বর্ণনাসূত্র)ও পাওয়া যায় না। আল্লাহু আলাম।”[ islamway]।

▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল।
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।