কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

পুরুষের খালি গায়ে চলা-ফেরা করার বিধান

প্রশ্ন: আমাদের দেশে দেখা যায়, পুরুষরা খালি গায়ে চলাফেরা করে। গায়ে কোনও শার্ট বা গেঞ্জি থাকে না। শুধু প্যান্ট বা লুঙ্গি পরে। আবার কেও কেও হাফ প্যান্ট পরে থাকে- যা হাঁটুর উপরে থাকে। আর অনেক সময় কোমরের দিকে নাভির নিচে থাকে। এটা কতটুকু শরিয়ত সম্মত? ইসলামে পুরুষদের পোশাকের ব্যাপারে কী বিধান দেয়া হয়েছে এবং গায়রে মাহরামদের সামনে কোন পোশাকে যাওয়া উচিত?

উত্তর:
অধিকাংশ আলেমের মতে, পুরুষের নাভি এবং হাঁটুর মধ্যবর্তী স্থান হল সতর। শরীর এতটুকু স্থান নিজ স্ত্রী বা দাসী ছাড়া কারও সামনে খোলা রাখা ঠিক নয়। কেননা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন:
ما بينَ السُّرَّةِ والرُّكبةِ عورةٌ
“নাভি ও হাঁটুর মধ্যবর্তী স্থান হল সতর।” (ইমাম আলবানী হাদিসটিকে হাসান হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। দ্রষ্টব্য: সহীহুল জামে, হা/5583)
রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরও বলেন:
غطِّ فخِذَكَ ، فإنَّ الفخِذَ عورةٌ
“তুমি তোমার রান ঢেকে রাখ। কেননা, রান হল সতর।” (সহীহ-আলবানী। দেখুন: সহীহুল জামে-হাদিস নং ৪১৫৭)

যদিও রান সতরের অন্তর্ভুক্ত কি না সে ব্যাপারে দ্বিমত আছে। কিছু হাদিসের আলোকে অন্য একদল আলেম পুরুষের রানকে সতর হিসেবে গণ্য করে নি। কিন্তু সার্বিক দিক থেকে এটাই উত্তম কথা যে, বর্তমানে চর্তুমূখী ফিতনার মধ্যে নিজের দ্বীনদারি, চারিত্র ও ব্যক্তিত্ব ধরে রাখার জন্য রানদ্বয় পরপুরুষ/পর নারীর সামনে ঢেকে রাখাই উত্তম। অবশ্য তাদের মতেও সালাতে রান খোলা রাখা জায়েজ নয়।

যা হোক, আমাদের সমাজে জনসমাবেশ, মসজিদ, মাহফিল, বাজার-ঘাটে নাভির উপরে এবং হাঁটুর নিচেও ঢেকে রাখা সামাজিকতা ও ভদ্রতা হিসেবে পরিগণিত হয়। সুতরাং একান্ত প্রয়োজন ছাড়া খালি গায়ে জন সম্মুখে চলা-ফেরা করা ভদ্রতা ও শিষ্টাচার পরিপন্থী কাজ।
অনুরূপভাবে একান্ত জরুরি দরকার ছাড়া পুরুষের হাঁটুর উপরে কাপড় উঠাও ঠিক নয়।
আল্লাহু আলাম।
—————-
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।

Share This Post