কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

নিজের জন্য বা অন্যের জন্য মৃত্যুর দুআ করা নিষিদ্ধ

প্রশ্ন:- আমার বোনের মেয়ে শিশু জন্ম হয়ে ২ দিনের মধ্যেই তার মৃত্যু হয়। বোন ও তার স্বামী বাচ্চাকে নিয়ে দুনিয়ার কোন নিয়ত না, শুধু বিনা হিসেবে জান্নাতের দুয়া করেছিল। বাচ্চাটা যেন ওদের হাত ধরে জান্নাতে নিয়ে যায়। নিয়ত ছিল, তাকে দ্বীন শিক্ষায় শিক্ষিত করবে। আর আল্লাহ্‌ যে এতো সহজে ওদের দুয়া কবুল করে নেবে, কল্পনাও কেউ করেনি। নিষ্পাপ অবস্থায় বাচ্চাটা মারা গেছে নেক নিয়তের উপর। আমার খুব ঈর্ষা হচ্ছে। আমার খুব কষ্ট হয়, আমার মেয়েটা দুনিয়ার কত শির্ক, বিদআত, পাপ, ফিতনা দেখছে কত সাবধানতার পরেও। এখন মনে মনে আমাদের এই বাচ্চার মৃত্যু দেখে ঈর্ষায় আমারো মন থেকে এমন চাওয়া আসছে যে, আমার মেয়েটাও নিষ্পাপ অবস্থায় এভাবেই দুনিয়া থেকে আল্লাহ্‌ নিক। বিনা হিসেবে জান্নাতে দাখিল করুন।
এখন এই চাওয়া কি দোষণীয় বা নাজায়েজ? আমি কি গুনাহগার হব?

উত্তর:
নিজ সন্তানের শিশু অবস্থায় দুনিয়া থেকে বিদায় নেওয়ার জন্য আকাঙ্ক্ষা পোষণ করা বা দোয়া করা “মৃত্যু কামনা”র শামিল।
ইসলামের দৃষ্টিতে কারো ‘মৃত্যু কামনা করা বা মৃত্যুর জন্য দোয়া করা’ বৈধ নয়।
কারণ আমরা কেউই আল্লাহর হেকমত এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জ্ঞাত নই।

হতে পারে, আল্লাহ তাআলা আপনার এই সন্তান এর মাধ্যমে দ্বীনের বিশাল খেদমত নিবেন। তার দ্বারা অসংখ্য মানুষ সত্যের পথ খুঁজে পাবে এবং জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তি অর্জন করবে-যেটা তার জন্য শিশুকালে মৃত্যুবরণের চেয়ে আরো বেশি সম্মান ও মর্যাদার কারণ হবে।

Share This Post