খাওয়ার আগে-পরে লবণ খাওয়া সংক্রান্ত হাদিসগুলো সব বানোয়াট ও ভিত্তিহীন

প্রশ্ন: খাবার আগে এবং পরে সামান্য লবণ মুখে দেওয়া কি সুন্নাহ?
উত্তর:
‘খাওয়ার আগে-পরে লবণ মুখে দেয়া সুন্নত’ এ কথা ভিত্তিহীন। বলা হয়ে থাকে যে, খাওয়ার আগে-পরে লবণ খেলে এতগুলো রোগে থেকে আরোগ্য পাওয়া যাবে, এই এই রোগের শিফা রয়েছে, এই এই উপকার হবে ইত্যাদি। কিন্তু মুহাদ্দিসদের তদন্তে এ বিষয়ে যত হাদিস বলা হয় সবই জাল বা বানোয়াট। এ বিষয়ে কোনও সহিহ হাদিস নাই।
– সে সব বানোয়াট হাদিসের মধ্যে একটি হল,
من أكل الملح قبل كل شيء، وبعد كل شيء؛ دفع الله عنه ثلاثمائة وثلاثين نوعًا من البلاء، أهونها الجذام.
“যে ব্যক্তি সব ধরণের খাবারের শুরুতে এবং শেষে লবণ খাবে মহান আল্লাহ তাকে ৩৩০ প্রকার রোগ থেকে শিফা দান করবেন। তার ছোট রোগটি হচ্ছে, কুষ্ঠ রোগ।” [নুযহাতুল মাজালিস ও দায়লামি সংকলিত আল ফিরদউস গ্রন্থ।]
এটি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর নামে একটি মিথ্যাচার ছাড়া কিছু নয়। উল্লেখ্য যে, দায়লামি সংকলিত আল ফিরদউস কিতাবটি অসংখ্য জাল-জইফ হাদিসের সমাহার।
– আরেকটি বানোয়াট হাদিস হল, আলি রা.কে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন,
إذا أكلت، فابدأ بالملح، واختم بالملح؛ فإن الملح شفاء من سبعين داء، أولها الجذام، والبرص، ووجع الحلق، والأضراس، والبطن.
“তুমি যখন খাদ্য খাবে তখন শুরুতে লবণ খাবে এবং খাওয়া শেষ করে লবণ খাবে। কেননা লবণের মধ্যে ৭০ প্রকার রোগের শিফা (রোগমুক্তি) রয়েছে। তার প্রথমটি হচ্ছে, কুষ্ঠ রোগ, মস্তিষ্ক বিকৃতি বা পাগলামি, শ্বেত কুষ্ঠ, গলার ব্যথা, দাঁতের ব্যথা ও পেট ব্যথা।” [বুগইয়াতুল বাহিছ আন যাওয়ায়িদিল হারিছ- ১/৫২৬]
এ হাদিসটি বানোয়াট। ইমাম সুয়ুতি, ইবনুল জাওযি প্রমুখ মুহাদ্দিসগণ এটি মউযু বা বানোয়াট হাদিস বলে চিহ্নিত করেছেন।

নিম্নে এ হাদিসটি সম্পর্কে মুহাক্কিক হাদিস বিশারদদের সনদ বিশ্লেষণ উপস্থাপন করা হল:
أورده الحافظ السيوطي في اللآلئ المصنوعة في الأحاديث الموضوعة، وقال محقق المطالب العالية لابن حجر: حديث بهذا الإسناد موضوع، كما قاله ابن الجوزي، وفيه أربع علل:
1- في إسناده: “عبد الرحيم بن واقد الخراساني”، وهو ضعيف.
2- وفي إسناده: “حماد بن عمرو النصبي”، وهو متروك.
3 – وفي إسناده: “السري بن خالد بن شداد”، وهو مجهول.
4- الانقطاع في إسناده، فإن علي بن الحسين زين العابدين، لم يدرك جده علي بن أبي طالب، كما أن محمَّد بن علي الباقر أرسل عن جده الحسين بن علي -رضي الله عنه
লবণ খাওয়া বিষয়ে আরও অনেক বানোয়াট হাদিস প্রচলিত রয়েছে।

যে সব পাপিষ্ঠ এসব হাদিস তৈরি করে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর নামে চালিয়ে দিয়েছে তাদের উপর আল্লাহর লানত বর্ষিত হোক। এদের কারণে বহু মানুষ আজ বিভ্রান্ত এবং গোমরাহির শিকার। শুধু তাই নয় এগুলোকে ভিত্তি করে ইসলাম বিদ্বেষী নাস্তিকরা ইসলাম সম্পর্কে নানা কটুক্তি করার সুযোগ পায় এবং ইসলামের ব্যাপারে অজ্ঞ লোকদের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়ায়।
আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে ইসলামের নামে সর্বপ্রকার ভিত্তিহীন কথা ও কর্ম হেফাজত করুন। আল্লাহু আলাম।
-আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল-

Share On Social Media