কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

অনলাইন বা অফলাইনে পোশাক প্রদর্শনীর জন্য যে সকল মূর্তি বা ছবি ব্যবহার করা হয় সেগুলোর ব্যাপারে ইসলামের বিধান

ইসলামে প্রাণীর মূর্তি, প্রতিকৃতি, ছবি, ভাস্কর্য তৈরি করা, বিক্রয় করা, প্রদর্শন করা, সংরক্ষণ করা হারাম-উদ্দেশ্য যাই হোক না কেন।
তবে যদি সেগুলোর মাথা কর্তন করা হয় বা মুখাবয়ব মুছে ফেলা হয় তাহলে তাতে কোন সমস্যা নেই। কারণ, ছবি/মূর্তির মূল হল মাথা। তাই যদি না থাকে তবে তা গাছ বা জড় পদার্থের মত হয়ে যায়।
এ সম্বন্ধে জিবরাইল আ. রসূলকে সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন:
مُر برأسِ التِّمْثَالِ يَقْطَعُ فَيَصِيْرُ عَلي هَيئَةِ الشَّجَرَةِ وَمُرْ بِالسَّتْرِ فلْيَقْطَعْ فليَجْعَلْ مِنْهُ وِسَادَتَيْنِ تَوطأنِ
“আপনি মূর্তির মাথা কেটে দিতে বলেন, ফলে উহা বৃক্ষ আকৃতিতে রূপান্তরিত হবে। আর পর্দার কাপড়কে দু টুকরা করে তা দ্বারা দুটি বালিশ বানাতে বলেন। (আবু দাউদ)
ইবনে আব্বাস রা. হতে বর্ণিত। রাসূল সা. বলেন:
الصورة الرأس فإذا قطع الرأس فلا صورة
“ছবি হল মাথা। সুতরাং মাথা কেটে ফেলা হলে সেটা আর ছবি থাকল না।” (সহীহুল জামে, আলবানী, হা/৩৮৬৪)
এমন কর্তিত মস্তক মূর্তি বা ছবিতে পুরুষ বা মহিলাদের পোশাক ডিসপ্লে করা যেতে পারে। তবে শর্ত হল, এর মাধ্যমে ইসলামে নিষিদ্ধ নোংরা ও বেহায়াপনা মূলক পোশাক প্রদর্শন করা যাবে না বা সেগুলোতে যেন নারী বা পুরুষের এমন সব অঙ্গ এমনভাবে ফুটে না থাকে যাতে বিপরীত লিঙ্গকে উত্তেজিত করতে পারে।
অনলাইন অথবা অফলাইন যাই হোক না কেন উপরোক্ত বিধানগুলো সর্বক্ষেত্রে প্রযোজ্য। আল্লাহ তাওফিক দান কারী।
▬▬▬✪✪✪▬▬▬
উত্তর প্রদানে: আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার সউদী আরব।।

Share This Post