কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

স্ত্রীকে যৌন উত্তেজনার সাথে স্পর্শ বা আলিঙ্গন করার সময় যদি লজ্জা স্থান থেকে পানি জাতীয় পদার্থ বের হয়

প্রশ্ন: স্ত্রীকে যৌন উত্তেজনার সাথে স্পর্শ বা আলিঙ্গন করার সময় যদি লজ্জা স্থান থেকে পানি জাতীয় পদার্থ বের হয় তাহলে কি নামাজ-রোজা হবে? উত্তর: স্বামী-স্ত্রী পরস্পরকে যৌন উত্তেজনার সাথে স্পর্শ বা আলিঙ্গন করার সময় যদি লজ্জা স্থান থেকে মনি/বীর্য (যৌন উত্তেজনা বশত: সুখানুভূতি সহকারে সবেগে স্খলিত ধাতু) নির্গত হয় তাহলে গোসল ফরজ হবে। আর গোসল … Read more স্ত্রীকে যৌন উত্তেজনার সাথে স্পর্শ বা আলিঙ্গন করার সময় যদি লজ্জা স্থান থেকে পানি জাতীয় পদার্থ বের হয়

রোযাদারের নাকে, কানে ও চোখে ড্রপ ব্যবহার করার বিধান কি

প্রশ্নঃ রোযাদারের নাকে, কানে ও চোখে ড্রপ ব্যবহার করার বিধান কি? ——————————– উত্তরঃ নাকের ড্রপ ব্যবহার করলে যদি তা পেটে পৌঁছে তবে রোযা ভঙ্গ হয়ে যাবে। কেননা লাক্বীত বিন সাবুরা (রাঃ) থেকে বর্ণিত হয়েছে, নবী (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) তাঁকে বলেন, وَبَالِغْ فِي الِاسْتِنْشَاقِ إِلَّا أَنْ تَكُونَ صَائِمًا ছিয়াম অবস্থায় না থাকলে ওযুর ক্ষেত্রে নাকে … Read more রোযাদারের নাকে, কানে ও চোখে ড্রপ ব্যবহার করার বিধান কি

আমি রোজা অবস্থায় অসুস্থতার কারণে নাকে নাসাল ড্রপ নিয়েছি

প্রশ্নঃ- আমি রোজা অবস্থায় অসুস্থতার কারণে নাকে নাসাল ড্রপ নিয়েছি; এর ফলে গলায় ঐ ঔষধের তিতা স্বাদ অনুভব করেছি। এক্ষেত্রে আমার রোজা শুদ্ধ হয়েছে কি?? উঃ- নাকের ছিদ্র দিয়ে ওষুধ প্রবেশ করানোর ফলে যদি গলায় ওষুধের স্বাদ পাওয়া যায় তাহলে এতে রোজা ভঙ্গ হয়ে যাবে বলে অনেক আলেম মত দিয়েছেন। তারা নিম্নোক্ত হাদিস দিয়ে দলিল … Read more আমি রোজা অবস্থায় অসুস্থতার কারণে নাকে নাসাল ড্রপ নিয়েছি

রোজা অবস্থায় মহিলাদের মাসিক শুরু হলে রোজা ভেঙ্গে যায়, তাহলে কি সে ঐ দিন খেতে পারবে না ইফতার পর্যন্ত অপেক্ষা করবে?

প্রশ্নঃ রোজা অবস্থায় মহিলাদের মাসিক শুরু হলে রোজা ভেঙ্গে যায়, তাহলে কি সে ঐ দিন খেতে পারবে না ইফতার পর্যন্ত অপেক্ষা করবে? উত্তরঃ না সে ইফতার পর্যন্ত অপেক্ষা করবে না, যেহেতু ঐ দিন তার জন্য রোজা রাখা বৈধ বা যায়েজ না। উত্তর প্রদানে: মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম মাদানি।।

যে ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকা খাবার কিংবা ওযু করাকালে কুলির কিছু পানি গিলে ফেলে তার রোযা ভেঙ্গে যায়

আমি শুচিবায়ু (OCD) তে আক্রান্ত। রমযান মাসে আমি যখন ওজু করতাম তখন বেশি বেশি থুথু ফেলতাম, এই ভয়ে না জানি গলার ভেতরে পানি চলে যায়। একবার আমি স্নায়ুর উপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে ইচ্ছা করে পানি খেয়ে ফেলেছি। এখন আমি এ গুনার কাফ্‌ফারা বা প্রতিকার কিভাবে করতে পারি? একবার রমযানে আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। আমার মা বাদাম … Read more যে ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকা খাবার কিংবা ওযু করাকালে কুলির কিছু পানি গিলে ফেলে তার রোযা ভেঙ্গে যায়

রোযা অবস্থায় যার স্বপ্নদোষ হয়েছে কিন্তু সে বীর্যের কোন আলামত দেখেনি

রোযা অবস্থায় আমার স্বপ্নদোষ হয়েছে। কিন্তু, আমি ঘুম থেকে জেগে বীর্যপাতের কোন কিছু দেখতে পাইনি। এর মানে আমি বীর্যপাত না করে স্বপ্ন দেখেছি। এমতাবস্থায় আমি কি গোসল করে আমার রোযা পূর্ণ করব; নাকি গোসল না করেই পূর্ণ করব; নাকি রোযা ভেঙ্গে ফেলব? আলহামদুলিল্লাহ। এক: যে ব্যক্তির স্বপ্নদোষ হয়েছে এরপর ঘুম থেকে জাগার পর সে বীর্যের … Read more রোযা অবস্থায় যার স্বপ্নদোষ হয়েছে কিন্তু সে বীর্যের কোন আলামত দেখেনি

এক ব্যক্তি ঘুম থেকে উঠে সেহেরী খেল। অতঃপর জানতে পারল যে, তাঁর খাওয়াটা ফজরের আযানের পর হয়েছে

প্রশ্নঃ এক ব্যক্তি ঘুম থেকে উঠে সেহেরী খেল। অতঃপর জানতে পারল যে, তাঁর খাওয়াটা ফজরের আযানের পর হয়েছে। সুতরাং তাঁর রোযা কি শুদ্ধ হবে? উত্তরঃ আযান সঠিক সময়ে হয়ে থাকলে এবং সে আযান হয়ে গেছে—এ কথা না জানলে তাঁর রোযা শুদ্ধ। কারণ অজান্তে বা ভুলে অনিচ্ছাকৃতভাবে পানাহার করে ফেললে রোযার ক্ষতি হয় না। মহানবী (সঃ) … Read more এক ব্যক্তি ঘুম থেকে উঠে সেহেরী খেল। অতঃপর জানতে পারল যে, তাঁর খাওয়াটা ফজরের আযানের পর হয়েছে

সাইনোসাইটিস রোগের কারণে নিঃসরিত নাকের শ্লেষ্মা রোযার কোন ক্ষতি করবে না

রোযা অবস্থায় সাইনোসাইটিস রোগীর পেটের ভেতরে নাকের শ্লেষ্মা চলে গেলে তার রোযার হুকুম কী? একই রোগী যদি নাকে রক্তসহ ঘুম থেকে জেগে উঠে এবং তার মুখে রক্তের স্বাদ পায় সেক্ষেত্রে হুকুম কী? আলহামদুলিল্লাহ। আলেমগণ সকলে এই মর্মে একমত যে, যদি কফ ও শ্লেষ্মা রোযাদারের পেটের ভেতরে চলে যায়, রোযাদার এটাকে ফেলে দিতে না পারে এক্ষেত্রে … Read more সাইনোসাইটিস রোগের কারণে নিঃসরিত নাকের শ্লেষ্মা রোযার কোন ক্ষতি করবে না

রোযাদার যদি রক্তপাতে আক্রান্ত হন

কোন রোযাদার যদি রমযান মাসের দীর্ঘ ২৮ দিন নাক দিয়ে রক্ত পড়া রোগে আক্রান্ত হয় এর হুকুম কী? আমি আপনাদেরকে জানাচ্ছি যে, আমার বয়স ৫৯ বছর। আমি জীবনে কোনদিন নাক পড়া রোগে আক্রান্ত হইনি। গত বছর রমযান মাসে আমি ভোর থেকে ইফতারের সময়ের মাঝে ৩ থেকে ৬ বার নাক দিয়ে রক্ত পড়ায় আক্রান্ত ছিলাম। আমার … Read more রোযাদার যদি রক্তপাতে আক্রান্ত হন

স্যালাইন, ভিটামিন ইনজেকশন ও শিরাতে পুশকৃত ইনজেকশন কি রোযা নষ্ট করবে?

স্যালাইন, ভিটামিন ইনজেকশন, শিরাতে পুশকৃত ইনজেকশন ও সাপোজিটরি ব্যবহারে কি রোযা ভাঙ্গবে? আমি অগ্রগণ্য অভিমতটি জানতে চাই। আলহামদুলিল্লাহ। এক: যা কিছু পানাহার, কিংবা পানাহারের স্থলাভিষিক্ত সেটাই রোযা ভঙ্গকারীর অন্তর্ভুক্ত। ফতোয়া বিষয়ক স্থায়ী কমিটির আলেমগণ বলেন: “রোযা ভঙ্গকারী বিষয় অনেক। এর মধ্যে রয়েছে- ইচ্ছাকৃত পানাহার। পানাহারের অধীনে পড়বে প্রত্যেক খাদ্য বা পানি যা পেটে প্রবেশ করে। … Read more স্যালাইন, ভিটামিন ইনজেকশন ও শিরাতে পুশকৃত ইনজেকশন কি রোযা নষ্ট করবে?

ফরজ গোসল করতে বিলম্ব করলে এমনকি ফজরের ওয়াক্ত হয়ে গেলেও রোজা নষ্ট হবে না

প্রশ্ন: একবার সেহেরীর পূর্বে আমার স্বপ্নদোষ হয়। কিন্তু আমি গোসল করতে পারিনি। গোসল করতে আমার তীব্র লজ্জাবোধ হচ্ছিল। কারণ আমার পিতামাতা জেনে যাবে যে, আমার স্বপ্নদোষ হয়েছে। তাই গোসল না করে আমি সেহেরী খেয়েছি। দুঃখজনক হল সেদিন আমি ফজরের নামাযও পড়িনি। তবে পরবর্তীতে গোসল করে আমি ফজরের নামায পড়েছি। আমি জানতে চাচ্ছি, আমার সে রোজাটা … Read more ফরজ গোসল করতে বিলম্ব করলে এমনকি ফজরের ওয়াক্ত হয়ে গেলেও রোজা নষ্ট হবে না

রোযা থাকা অবস্থায় পাকস্থলির খাদ্য মুখে চলে আসলে করণীয়

প্রশ্ন: আমি এমন একটি পাকস্থলির রোগে আক্রান্ত যে, আমার মুখে তরল পদার্থ জমলে পাকস্থলি থেকে খাদ্য বেরিয়ে আসে। রমযান মাসে আমার এমনটি ঘটেছে। আমাকে কি রোযার কাযা পালন করতে হবে? উত্তর: আলহামদুলিল্লাহ। যদি রোযাদারের পাকস্থলি থেকে কোন কিছু মুখে চলে আসে তাহলে রোযাদারের কর্তব্য হচ্ছে সেটা থু দিয়ে ফেলে দেয়া। যদি রোযাদার ইচ্ছাকৃতভাবে সেটা গিলে … Read more রোযা থাকা অবস্থায় পাকস্থলির খাদ্য মুখে চলে আসলে করণীয়

রমজানে দিনের বেলায় সহবাসের কারণে ফরজ হওয়া কাফ্‌ফারা অনাদায় রেখে যিনি মারা গেছেন, তার সন্তানদের কী করণীয়

প্রশ্ন : আমার বাবা মারা গেছেন (আল্লাহ তাঁর প্রতি রহম করুন)। তিনি কিছু সম্পদ রেখে গেছেন। সে সম্পদ ওয়ারিশদের মাঝে বণ্টন করে দেয়া হয়েছে। বাবার মৃত্যুর পর মা আমাকে জানিয়েছেন যে, ২৫ কি ৩০ বছর আগে বাবা একবার রমজান মাসে তাঁর সাথে সহবাস করেছিলেন; যে ব্যাপারে আমার মা অসম্মত ছিলেন। আমার মা যতটুকু স্মরণ করতে … Read more রমজানে দিনের বেলায় সহবাসের কারণে ফরজ হওয়া কাফ্‌ফারা অনাদায় রেখে যিনি মারা গেছেন, তার সন্তানদের কী করণীয়

রমজান মাসে দিনের বেলা শারীরিক মিলন সংক্রান্ত ৬টি মাস্‌য়ালা

প্রশ্ন : এটি কারো অজানা নয় যে, যে ব্যক্তি রমজান মাসে দিনের বেলায় তার স্ত্রীর সাথে সহবাস করবে, তার কাফ্‌ফারা হল- একজন দাস মুক্ত করা অথবা (তা না পারলে) একটানা দুই মাস রোযা রাখা অথবা (তা না পারলে) ৬০ জন মিসকীনকে খাওয়ানো। প্রশ্ন হল- ১- যে ব্যক্তি রমজান মাসের ভিন্ন ভিন্ন দিবসে নিজের স্ত্রীর সাথে … Read more রমজান মাসে দিনের বেলা শারীরিক মিলন সংক্রান্ত ৬টি মাস্‌য়ালা

যে ব্যক্তি রমজান মাসে দিনের বেলায় স্ত্রীর সাথে সহবাস করেছে কিন্তু বীর্যপাত হয়নি

প্রশ্ন : এক লোক রমজান মাসে দিনের বেলায় স্ত্রীর সাথে সহবাস করেছে, কিন্তু বীর্যপাত হয়নি। এর হুকুম কী? আর সে স্ত্রীরই বা করণীয় কী- যিনি এ ব্যাপারে অজ্ঞ ছিলেন? উত্তর : সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য। রমজান মাসে দিনের বেলায় যে ব্যক্তি যৌনমিলন করে তিনি মুকীম (নিজ অঞ্চলে অবস্থানকারী) রোযাদার হলে তার উপর বড়-কাফ্‌ফারা (আল কাফ্‌ফারাতুল … Read more যে ব্যক্তি রমজান মাসে দিনের বেলায় স্ত্রীর সাথে সহবাস করেছে কিন্তু বীর্যপাত হয়নি

স্ত্রী রমজানের কাযা রোযা পালনকালীন সময়ে স্বামী তার সাথে সহবাস করেছে; এখন তাদের উভয়ের করণীয় কি?

প্রশ্ন : রমজানের আগে আমার স্ত্রী বিগত রমজান মাসের কিছু কাযা রোযা পালন করছিলেন। এমতাবস্থায় আমি তার সাথে সহবাসে লিপ্ত হয়েছি। সে সবগুলো রোযা কাযা করতে পারেনি। বিঃ দ্রঃ সে পূর্বেই আমার কাছে রোযা পালনের অনুমতি চেয়েছিল এবং আমি তাকে অনুমতি দিয়েছিলাম। উত্তর : সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য। এক: যিনি কোন ওয়াজিব রোযা শুরু করেন … Read more স্ত্রী রমজানের কাযা রোযা পালনকালীন সময়ে স্বামী তার সাথে সহবাস করেছে; এখন তাদের উভয়ের করণীয় কি?

মুয়াজ্জিন ফজরের আযান দিচ্ছিলেন সে সময় যে ব্যক্তি তার স্ত্রীর সাথে সহবাসে লিপ্ত ছিলেন

প্রশ্ন : রমজান মাসে ফজরের আযানের আগ থেকে আমি আমার স্ত্রীর সাথে সহবাস করছিলাম। আযান চলাকালীন সময়েও আমি সহবাসরত ছিলাম। তবে আযান শেষ হওয়ার আগেই আমরা বিরত হয়েছি। আমার ধারণা ছিল যে, মুয়াজ্জিনের আযান শেষ করার পূর্ব পর্যন্ত সহবাস করা জায়েয। এখন আমার করণীয় কি? আলহামদুলিল্লাহ। এক: যদি ফজরের ওয়াক্ত শুরু হওয়ার সাথে সাথে মুয়াজ্জিন … Read more মুয়াজ্জিন ফজরের আযান দিচ্ছিলেন সে সময় যে ব্যক্তি তার স্ত্রীর সাথে সহবাসে লিপ্ত ছিলেন