যে নিজেকে চিনল সে তার প্রভুকে চিনল।” এটি কি কোন হাদিস

প্রশ্নঃ  “যে নিজেকে চিনল সে তার প্রভুকে চিনল।” এটি কি কোন হাদিস?
▬▬▬◆◯◆▬▬▬
এ কথাটি হাদিস কি হাদিস নয় তা আলোচনার আগে বলা প্রয়োজন যে, নিজেকে চেনা ও জানার বিষয়টি প্রতিটি মানুষের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যেমন:
✓ আমি কে?
✓ কী আমার পরিচয়?
✓ আমাকে কে সৃষ্টি করেছেন?
✓ তিনি কেন আমাকে সৃষ্টি করেছেন?
✓ তিনি কেন আমাকে দুনিয়ায় পাঠিয়েছেন?
✓ এ পৃথিবীতে আমার দায়িত্ব ও কর্তব্য কী?
✓ আমার শেষ গন্তব্য ও পরিণতি কোথায়?
✓ আমি আমার চূড়ান্ত গন্তব্যের জন্য কতটুকু পাথেয় সংগ্রহ করেছি?
✓ দুনিয়া থেকে চিরবিদায় গ্রহণ করার পর পরকালের প্রথম ধাপ কবরের ইন্টারভিউ এর জন্য আমি নিজেকে কতটা প্রস্তুত করেছি?
✓ হাশরের ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রবের সম্মুখে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড়ানোর জন্য আমি কতটুকু প্রস্তুত?
এভাবে যদি একজন মানুষ আত্ম সমালোচনার মাধ্যমে নিজেকে আবিষ্কার করে, নিজের অবস্থান জাচায় করে এবং নিজ দায়িত্ব-কর্তব্য সম্পর্কে হৃদয়ে আত্মোপলব্ধি সৃষ্টি করে তাহলে তা নি:সন্দেহে প্রশংসনীয়। কারণ এই আত্মোপলব্ধি তাকে মহান আল্লাহর পথে পরিচালিত করতে এবং আখিরাত মুখী হতে সাহায্য করবে ইনশাআল্লাহ। এটি কুরআন-হাদিসের মূলনীতির সাথে সাংঘর্ষিক নয়। তবে বিভিন্ন তাসাউফ ও দর্শনের কিতাবে এবং সুফি ভাবধারার বক্তাদের মুখে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর হাদিসের নামে এ কথাটি খুব প্রসিদ্ধ যে, “যে নিজেকে চিনল সে তার প্রভুকে চিনল।” কিন্তু প্রকৃত পক্ষে তা আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর হাদিস নয় বরং সম্পূর্ণ বানোয়াট ও ভিত্তিহীন কথা। হয়ত তা কোন ব্যক্তি বিশেষের উক্তি হতে পারে। এ প্রসঙ্গে তারা আরও বলে, “আত্ম জ্ঞানই তত্ত্ব জ্ঞানের কুঞ্জি।”

◈◈ যাহোক নিম্নে উপরোক্ত প্রচলিত কথাটির ব্যাপারে কয়েকজন মুহাদ্দিসদের বক্তব্য তুলে ধরা হল:
من عرف نفسه فقد عرف ربّه
“He Who Knows Himself, Knows His Lord.”
“যে নিজেকে চিনল সে তার প্রভুকে চিনল।”

● সুয়ূতি বলেন, باطل لا أصل له “এটি বাতিল ও ভিত্তিহীন।” [তাদরীবুর রাবী ২/১৬৭]
● মোল্লা আলী ক্বারী বলেন, قيل لا أصل له أو بأصله موضوع “বলা হয়েছে, এর কোন ভিত্তি নাই বা মূলতই এটি বানোয়াট কথা।” [আল আসরারুল মারফূআহ: ৩৩৭]
● যুরকানী বলেন, ليس بحديث “এটি কোন হাদিস নয়।” [মুখতাসারুল মাকাসিদ: ১০৫২]
● আলবানি বলেন, لا أصل له “এর কোন ভিত্তি নাই।” (সিলসিলা যাঈফা: ৬৬)
প্রায় একই মন্তব্য করেছেন আরও অনেক মুহাদ্দিস। সুতরাং এটি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর পবিত্র মুখনিঃসৃত হাদিস নয় তা নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।
আল্লাহু আলাম।
▬▬▬◆◯◆▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
(লিসান্স, মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়)
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সৌদি আরব।