ফেসবুকে কাদেরকে ফ্রেন্ড বানাবেন এবং তাদেরকে বানাবেন না

প্রশ্ন: যে সকল মানুষ ফেসবুকে মিউজিক, নাটক, সিনেমা, বেপর্দা নারীর ছবি-ভিডিও ইত্যাদি আপলোড করে তাদেরকে কি ফেন্ড বানানো জায়েজ?▬▬▬▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬▬▬▬
উত্তর: আমাদের জানা জরুরি যে, সোশ্যাল মিডিয়া‌ বা ইন্টারনেটে হারাম জিনিস আপলোড ও প্রচারের ভয়াবহতা অনেক বেশি। কারণ এগুলো কপি-পেস্ট এবং শেয়ারের মাধ্যমে হাজার হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে যায়। এমনও হতে পারে, আপনি কোনো পোস্ট ডিলিট করে দিয়েছেন কিন্তু তা অন্যরা কপি-পেস্ট করে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দেয়। ফলে তা অনলাইন জগতে যুগ যুগ ধরে কতদিন চালু থাকবে তা আল্লাহ ছাড়া আর কেউ জানে না। এক্ষেত্রে আপনি তা পোস্ট দেওয়ার কারণে নেট জগতে যত দিন যত মানুষ এর দ্বারা গুনাহে লিপ্ত বা পথভ্রষ্ট হবে হবে ততদিন তাদের প্রত্যেকের সমপরিমাণ গুনাহ আপনার আমলনামায় লিপিবদ্ধ হতেই থাকবে। এমনকি আপনি মারা গেলেও। (আল্লাহ ক্ষমা করুন। আমিন)

অবশ্য আপনি যদি উক্ত হারাম পোস্ট ডিলিট করে লজ্জিত অন্তরে আল্লাহর নিকট তওবা করেন তাহলে আশা করা যায়, মহান আল্লাহ ক্ষমা করবেন। নিশ্চয় তিনি পরম দয়ালু ও ক্ষমাশীল। ‌

এর বিপরীতে আপনি যদি এখানে ভালো ও কল্যাণকর বিষয়াদি এবং কুরআন-সুন্নাহ ও বিশুদ্ধ আকিদা ভিত্তিক দীনের কথা প্রচার করেন এবং মানুষ তার দ্বারা উপকৃত হয় তাহলে অবিরতভাবে আপনার আমলনামায় তার সওয়াব জমা হতেই থাকবে যতদিন তা নেট জগতে বিদ্যমান থাকবে এবং মানুষ তার দ্বারা লাভবান হবে ইনশাআল্লাহ।

সুতরাং, আমাদের ফ্রেন্ডলিস্টে এমন মানুষ থাকা উচিত নয়, যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় মিউজিক, গান-বাজনা, নাটক, সিনেমা, অশ্লীল বা বেপর্দা নারীর ছবি-ভিডিও, তার জীবনে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন পাপাচারের ঘটনা, শিরক, বিদআত, বানোয়াট হাদিস, কুসংস্কার ও দলিল বহির্ভূত কথাবার্তা, ভণ্ড ও মূর্খ বক্তাদের ওয়াজ ইত্যাদি হারাম জিনিস পোস্ট বা শেয়ার করে। অথবা যে নানাভাবে আপনাকে গুনাহের দিকে টেনে নিয়ে যায় কিংবা যার কারণে আপনি ঈমান, আমল ও আখলাকগত দিক থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করেন। তাই এ জাতীয় মানুষকে ফ্রেন্ডলিস্ট থেকে রিমুভ করাই নিরাপদ। অবশ্য আপনি যদি তাকে নসিহত করে এই হারাম পথ থেকে ফেরাতে সক্ষম হন তাহলে তো আলহামদুলিল্লাহ তা অনেক সওয়াবের কাজ। অন্যথায় এদের থেকে দূরে থাকা নিরাপদ। এর পরিবর্তে এমন ফ্রেন্ডদেরকে লিস্টে জায়গা করে দিবেন যাদের মাধ্যমে আপনি দীন বা দুনিয়াবি বিষয়ে উপকৃত হন, জ্ঞান অর্জন করতে পারেন এবং সৎ কর্মে অনুপ্রেরণা পান। আল্লাহ তৌফিক দান করুন। আমিন।▬▬▬▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬▬▬▬
♦️আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল♦️

Share On Social Media