কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

নারীদের পুলিশ ও আর্মি হিসেবে চাকুরী করার বিধান

◈ প্রশ্ন: মহিলার জন্য পুলিশ হিসেবে কাজ করা কি জায়েজ না কি হারাম?

উত্তর:
الحمد لله والصلاة والسلام على رسول الله وعلى آله وصحبه، أما بعـد

মহিলার জন্য দ্বীনের দিক দিয়ে সবচেয়ে উপযুক্ত ও নিরাপদ হল, বাড়িতে অবস্থান করা-যেমনটি মহান আল্লাহ তাআলা বলেছেন:
وَقَرْنَ فِي بُيُوتِكُنَّ وَلَا تَبَرَّجْنَ تَبَرُّجَ الْجَاهِلِيَّةِ الْأُولَى
“আর তোমরা তোমাদের ঘরে অবস্থান করবে; মূর্খতা যুগের অনুরূপ নিজেদেরকে প্রদর্শন করবে না।” (সূরা আহযাব: ৩৩)
এতদসত্বেও যদি তার কাজ করার দরকার হয় এবং সমাজ তার প্রয়োজন অনুভব করে তাহলে সে এমন কাজ করতে পারে যা তার স্বভাব-প্রকৃতি ও নারীত্বের জন্য উপযোগী। যেমন: মহিলাদের জন্য ডাক্তার, গার্লস স্কুলের শিক্ষিকা ইত্যাদি। কিন্তু পুলিশ বিভাগে কাজ করার ব্যাপারে কথা হল, এটি এমন একটি পেশা যেখানে নারী-পুরুষের সংমিশ্রণ ঘটে। কারণ অধিকাংশ পুলিশ কর্মকর্তারা পুরুষ। তাছাড়া পুলিশি কার্যক্রম, তদন্ত ইত্যাদি সাধারণত পুরুষ কর্মকর্তাদের সঙ্গেই হয়ে থাকে। এ কারণে আমরা তা বৈধ মনে করি না। কারণ এতে করে ফেতনা-ফ্যাসাদ সৃষ্টি হয় অথচ নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই ফিতনার ব্যাপারে অত্যন্ত কঠিন ভাবে সতর্ক করেছেন।

◆ সহিহ বুখারী ও মুসলিমে উসামা বিন যায়েদ রা. হতে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন:
ما تركت بعدي فتنة أضر على الرجال من النساء
“আমার পরে আমি পুরুষদের জন্য মহিলাদের চেয়ে অধিক ক্ষতিকর ফিতনা রেখে যাই নি।” (বুখারী ও মুসলিম)
◆ আবু সাঈদ খুদরি রা. হতে বর্ণিত, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন:
اتقوا الدنيا واتقوا النساء, فإن أول فتنة بني إسرائيل كانت في النساء وقد سألت أمنا عائشة رضي الله عنها فقالت : يا رسول الله هل على النساء جهاد؟ قال: نعم جهاد لا قتال فيه؛ الحج والعمرة رواه أحمد وأصله في البخاري

“তোমরা দুনিয়ার (ধোঁকা) থেকে বাঁচ এবং নারীর (ফিতনা থেকে) বাঁচ। কারণ, বানী ইসরাইলের সর্বপ্রথম ফিতনা নারীকে কেন্দ্র করেই হয়েছিল।
আমি আমাদের মা-জননী আয়েশা রা.কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, (আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালাম কে জিজ্ঞেস করলাম): হে আল্লাহর রাসূল, মহিলাদের জন্য কি জিহাদ আছে?
তিনি বললেন: “হ্যাঁ, এমন জিহাদ যাতে লড়াই নেই। তা হল হজ ও ওমরা।” (মুসনাদে আহমদ, ইবনে মাজাহ, হা/৩৯১০, হাদিসটি সহিহ। হাদিসের মূল বক্তব্য সহিহ বুখারীতেও বর্ণিত হয়েছে)

এ কথায় কোনো সন্দেহ নাই যে, পুলিশ প্রশাসনে কর্মরত একজন মহিলার সর্বনিম্ন পরিস্থিতি হবে, পর্দা হীনতা। সাথে নারী-পুরুষের অবাধ মেলামেশা-যেমনটি উল্লেখ করা হয়েছে।
মহান আল্লাহ নিকট দুআ করি, তিনি যেন মুসলিম নারীদেরকে তাদের বাড়িতে ফিরে আসার তাওফিক দান করেন এবং মুসলিম উম্মাহর অবস্থার পরিবর্তন করেন। নিশ্চয় তিনি এর উপর ক্ষমতাবান।
আল্লাহু আলাম।
উৎস: ইসলাম ওয়েব ডট নেট
অনুবাদক: আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানী।।

Share This Post