গায়ে হলুদের বিধান

প্রশ্ন: অনেকে বলেন, মাহরামদের নিয়ে গায়ে হলুদ করা জায়েজ। আমার প্রশ্ন হল, গায়ে হলুদ তো অন্য জাতিদের আচার। তাহলে বিয়ের জন্য এটা ফলো করা কি হাদীস পরিপন্থী নয়?▬▬▬▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬▬▬▬

উত্তর: আমাদের সমাজে বিয়ের আগে বর ও কনের গায়ে কাঁচা হলুদ মাখানোর প্রচলন রয়েছে ।সাধারণভাবে এর উদ্দেশ্য থাকে শরীরের রঙ সুন্দর করা ও আনন্দ প্রকাশ করা। ইসলাম কোন সামাজিক প্রচলনকে নিষিদ্ধ করে না যদি না তার মধ্যে ইসলাম বিরোধী কিছু পাওয়া যায়। সুতরাং এ উদ্দেশ্যে বর বা কনের গায়ে হলুদ মাখানো হলে তাতে শরিয়তগতভাবে কোন সমস্যা নেই। তবে এ ক্ষেত্রে নন মাহরাম ছেলেরা মেয়েদের গায়ে আর নন মাহরাম মেয়েরা ছেলেদের গায়ে হলুদ লাগানো, গান-বাজনা করা, বেগানা নারী-পুরুষের সংমিশ্রণ, হলুদ মেখে শরীর পবিত্র করার হিন্দুয়ানী বিশ্বাস ও আচার-অনুষ্ঠান করা জায়েজ নাই।

❒ শাইখ আব্দুল হামীদ ফায়যী মাদানী (হাফিযাহুল্লাহ) বলেন,

বিবাহের মৌসুমে একটি সতর্কতা:

একদা এক সাহাবির গায়ে হলুদ রঙ দেখে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বুঝেছিলেন যে, তিনি নব-বিবাহিত। [বুখারী, মুসলিম] সেটা হলুদের রঙ নয়। বরং স্ত্রীর দেহের ‘খালুক’ (মহিলাদের ব্যবহার্য্য এক প্রকার সুগন্ধি)-এর হলুদ রঙ যা তাঁর কাপড়ে লেগে গিয়েছিল। [ফাতহুল বারী ৯/১৪৪]
সুতরাং এটাকে পাত্র-পাত্রীর জন্য হলুদ মাখার বৈধতার দলিল মানা যায় না। উল্লেখ্য যে, পাত্র-পাত্রীর গায়ে হলুদ দিয়ে বিবাহ-লগ্ন শুরু করা বিদআত। [আদর্শ বিবাহ ও দাম্পত্য]
তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ে শুভ হবে’-এই নিয়ত গায়ে হলুদ মাখানো হলে তা হবে শিরক, বিয়ের আগে তা করণীয় মনে করলে তা হবে বিদআত, সবার দেখাদেখি করলে তা হবে বিজাতীয় অনুকরণ এবং গায়ের রং উজ্জ্বল করার উদ্দেশ্য হলে তা বৈধ। তবে যার দেহ স্পর্শ করা বৈধ তাকে মাখাতে হবে। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি যে জাতির অনুকরণ করবে সেই ব্যক্তি সেই জাতির দলভুক্ত। [আবু দাউদ ৪০৩৩, সহিহুল জামে, হা/৬১৪৯] [ঈষৎ পরিবর্তিত ও পরিমার্জিত]

❒ ডক্টর মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ (হাফিযাহুল্লাহ):

প্রশ্ন: বিয়ের সময় বর-কনের গায়ে হলুদ লাগানো হয় এবং গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান করা হয়। এগুলো করা কি ইসলাম সম্মত?

উত্তর: গায়ে হলুদ শুধু আমাদের কালচার, তা ঠিক নয়। ইসলামি কালচারের মধ্যে এটা আসেনি। কিন্তু এটা কোনও গুনাহের কাজ নয়। এটা যদি ইবাদত হিসেবে গ্রহণ করে, তাহলে ভুল হবে। এটা ইবাদতের বিষয় নয়। এটা হচ্ছে এলাকার প্রচলন হিসেবে। সৌন্দর্যের জন্য এটা করা যেতে পারে। এখন ছেলেরা মেয়েদের আবার মেয়েরা ছেলেদের আনুষ্ঠানিকভাবে গায়ে হলুদ দেয়, তা ঠিক নয়। এগুলো পুরোটাই শরিয়াহ অনুযায়ী গ্রহণযোগ্য নয়। এই আনুষ্ঠানিকতা ইসলামে কোথাও আসেনি। তবে ব্যক্তিগতভাবে যদি কেউ গায়ে হলুদ মাখে, তাহলে সেটা জায়েজ। অনানুষ্ঠানিক ভাবে যদি কেউ সৌন্দর্যের জন্য মেহেদি দিয়ে কাউকে সাজায়, সেটা জায়েজ আছে।
[সূত্র: ntvbd-ধর্ম ও জীবন] আল্লাহ সবচেয়ে ভাল জানেন।

▬▬▬▬✿◈✿▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল।
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ সেন্টার, সৌদি আরব।