কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক প্রশ্নোত্তর প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।।

কোন বিয়ের কনে যদি বিয়ের দিন মাগরিব আর এশার সালাত জমা করে পড়ে তাহলে কি গুনাহগার হবে?

প্রশ্ন:- আমরা জানি যে আল্লাহর রাসূল (সা) আমাদের সালাত জমা করে পড়ার সুযোগ রেখে আমাদের সহজ করে দিয়েছেন কিন্তু জমা করার জন্য উপযুক্ত ওজর থাকতে হবে, আমার প্রশ্ন হচ্ছে কোন বিয়ের কনে যদি বিয়ের দিন মাগরিব আর এশার সালাত জমা করে পড়ে তাহলে কি গুনাহগার হবে? দেখা যায় হয়ত মাগরিবের সময় বা মাগরিবের কিছু পূর্বে কনে বিদায় হয় এক্ষেত্রে হয়ত সে গাড়িতে অথবা ঠিক বিদায় মুহুর্ত তখন অনেকেরই সালাত পড়া সম্ভব হয় না এক্ষেত্রে কি মাগরিব এশার সাথে জমা করে এশার সময় পড়তে পারবে?

উত্তর:- বিয়ের দিন যথাসময়ে সালাত আদায় করা কি সম্ভব নয়? অবশ্যই সম্ভব। বরপক্ষের কতর্ব্য হবে, হয় তারা মাগরিবের সালাত পড়ার পর গাড়ি ছাড়বে অথবা রাস্তায় কোথাও গাড়ি দাঁড় করিয়ে সকলকে সালাতের সুযোগ দিবে। কিন্তু কোনভাবে লোকজনকে সালাত আদায় থেকে বিরত রাখা বৈধ নয়।
আল্লাহর ভয় থাকলে মানুষ কখনো সালাতের ব্যাপারে অবহেলা প্রকাশ করতে পারে না।
কিন্তু দুর্ভাগ্য, বর্তমানে মুসলিমরা যেন তাদের দ্বীনকে ভুলতে বসেছে-যা আল্লাহর আযাব আসার অন্যতম একটি কারণ।
যোহোক, গন্তব্য যদি সফরের দুরুত্বে না হয় তাহলে আপনি যথাসম্ভব চেষ্টা করবেন, সঠিক সময়ে সালাত আদায় করার। কিন্তু একান্ত ইচ্ছা ও প্রচেষ্টা স্বত্বেও যথাসময়ে সালাত আদায় করতে সক্ষম না হলে গন্তব্যে পৌঁছে দু ওয়াক্তের সালাত একাসাথে আদায় করবেন এবং আল্লাহ নিকট ইস্তিগফার করবেন।

আর সফরের দূরুত্ব হলে, মাগরিব ও ইশার সালাত একসাথে জমা করে পড়ার বৈধতা রয়েছে। সুতরাং গন্তব্যে পৌঁছার পরে প্রথমে মাগরিব তারপর ইশার সালাত পড়ে নিবেন। তাহলে ইনশাআল্লাহ এতে কোন আপত্তি নাই। আল্লাহ তাওফিক দান করুন। আমীন।

_______
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল মাদানী

Share This Post