কবর জিয়ারত করতে গিয়ে দু হাত উত্তোলন করে দুআ করার বিধান

প্রশ্ন: কবর জিয়ারত করতে গিয়ে কি দু হাত উত্তোলন করে দুআ করার বিধান কি?

উত্তর:
হ্যাঁ, কবর জিয়ারতে গিয়ে একাকী হাত তুলে দুআ করা জায়েজ আছে। কারণ হাদিসে বর্ণিত হয়েছে,
فَأَطَالَ الْقِيَامَ ثُمَّ رَفَعَ يَدَيْهِ ثَلاَثَ مَرَّاتٍ
“তিনি (নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) সেখানে (মদিনার বাকি গোরস্থানে) দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকলেন। অতঃপর তিনি তিনবার হাত উঠিয়ে দু’আ করলেন।” [সহীহ মুসলিম, অধ্যায়: ১২। জানাজা, পরিচ্ছেদ: ৩৫. কবরে প্রবেশের সময় কী বলবে এবং কবর বাসীর জন্য দুআ প্রসঙ্গে]

◈ ইমাম নওবী রাহ. এ হাদিসের ব্যাখ্যায় বলেন,
فيه : استحباب إطالة الدعاء وتكريره ، ورفع اليدين فيه . وفيه : أن دعاء القائم أكمل من دعاء الجالس في القبور
“এ হাদিস যে সব বিষয় রয়েছে সেগুলোর মধ্যে:
● ১. দুআ লম্বা করা, তা বারবার করা এবং তাতে দু হাত উত্তোলন করা মুস্তাহাব।
● ২. আরও রয়েছে, কবরে বসে থাকা ব্যক্তির দুআর চেয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তির দুআ অধিক উত্তম। [শরহে মুসলিম]

◈ শাইখ বিন বায রাহ. কে প্রশ্ন করা হয়, মৃতের কবরে হাত তুলে দুআ করার বিধান কী?
তিনি উত্তরে বলেন,

إن رفع يديه فلا بأس؛ لما ثبت عن النبي ﷺ في حديث عائشة رضي الله عنها: أنه ﷺ زار القبور ورفع يديه ودعا لأهلها رواه مسلم

“যদি হাত উত্তোলন করে তাহলে তাতে কোনও সমস্যা নেই। কারণ আয়েশা রা. কর্তৃক বর্ণিত হাদিসে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে সাব্যস্ত হয়েছে যে, তিনি কবর জিয়ারত করতে গিয়ে কবরবাসীদের জন্য দু হাত উত্তোলন করে দুআ করেছেন।” (সহিহ মুসলিম)।
তবে কবর জিয়ারত করতে গিয়ে অথবা দাফন করার পরপর মৃত ব্যক্তির উদ্দেশ্যে সম্মিলিত দুআ করা শরিয়ত সম্মত নয়। বরং প্রত্যেকে নিজে নিজে দুআ করবে। তিনি এ প্রসঙ্গে বলেন,
الدعاء الجماعي عند القبر ليس له أصل

“কবরের নিকট সম্মিলিত দুআ করার কোনও ভিত্তি নাই।” মৃতকে কবরের দাফন করার পরপর দুআ করার ক্ষেত্রেও তিনি বলেন, “প্রত্যেকেই নিজে নিজে দুআ করবে। প্রত্যেকই বলবে, হে আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দাও, তার প্রতি দয়া করো, তাকে (কবরে ফেরেশতাদের প্রশ্নের) সঠিক উত্তর দেওয়ার শক্তি দাও এবং তাতে সুদৃঢ় রাখো ইত্যাদি।” [শাইখের অফিসিয়াল ওয়েব সাইট]

◈ শাইখ সালেহ আল ফাউযান (হাফিজাহুল্লাহ) কে প্রশ্ন করা হয়, মৃত ব্যক্তির উদ্দেশ্যে দুআ করার সময় দু হাত উত্তোলন করা করা কি জায়েজ?
তিনি উত্তরে বলেন,
نعم , لا بأس. الأصل فى الدعاء أن ترفع فيه الأيدي إلا ما ورد أن الرسول دعا ولم يرفع يديه
“হ্যাঁ, এতে কোনও সমস্যা নেই। কেননা দুআর ক্ষেত্রে মূলনীতি হল, এতে হাত উঠানো উচিত। তবে যে সব ক্ষেত্রে বর্ণিত হয়েছে যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দুআ করেছেন কিন্তু হাত উঠাননি সেসব ক্ষেত্রে ব্যতিরেকে।” [ইউটিউব চ্যানেল: ডক্টর আল্লামা সালেহ আল ফাউযান]
আল্লাহু আলাম।
▬▬▬▬◆◈◆ ▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:
আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল
দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সৌদি আরব।।